• শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ০১:৪৯ অপরাহ্ন
সর্বশেষ খবর
ঢাকাস্থ শিয়ালকাঠী ইউনিয়ন কল্যাণ সমিতি পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা সমুদ্র নগরী কক্সবাজারে পর্যটকের নিরাপত্তায় কক্স-ক্যাব এমপি আনার খুন: যা উল্লেখ আছে মামলার এজাহারে এমপি আনারকে হত্যা, মরদেহ উদ্ধার আজ কক্সবাজারের অবিসংবাদিত নেতা জিএম রহিম উল্লাহর মৃত্যুবার্ষিকী, সম্পাদকের শ্রদ্ধা নির্বাচনী সংঘর্ষে নিহত হয়েছেন পোকখালীর এক কর্মী সমর্থক চকরিয়ায় সাঈদি, পেকুয়ায় রাজু ও ঈদগাঁওতে তালেব চেয়ারম্যান নির্বাচিত বাংলাদেশ প্রেসক্লাব ইউএইর দ্বিবার্ষিক নির্বাচন সম্পন্ন সভাপতি মামুনুর রশীদ, সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ মোরশেদ আলম টেকনাফে আইন শৃংখলা কমিটির সভায় : নির্বাচনকে সামনে রেখে আইন শৃংখলা নিয়ন্ত্রণ রাখুন; ইউএনও আদনান সাগরে ৬৫ দিন মাছ আহরণ বন্ধ, দুশ্চিন্তায় জেলেরা

টেকনাফের হ্নীলায় এক শিক্ষার্থীকে আটকে রেখে ধর্ষণ,অতঃপর হত্যা

কক্সবাজারবানী’র সাথে থাকুন
আপডেট : শনিবার, ২৯ জুলাই, ২০২৩

টেকনাফের হ্নীলায় মাদ্রাসা শিক্ষার্থী কক্ষে আটকে ধর্ষণের পর খুন : মৃতদেহ উদ্ধার ও ঘাতক আটক
মামুনুর রশীদ টেকনাফ :
টেকনাফের হ্নীলায় মাদ্রাসায় পড়ুয়া এক মেয়ে শিশু শিক্ষার্থীকে অপহরণের পর মুক্তিপণ আদায়ে ব্যর্থ হয়ে মাদ্রাসা কক্ষে ধর্ষণের পর খুন করে লাশ উলঙ্গ অবস্থায় নর্দমায় ফেলে দিয়েছে। র‌্যাব ঘাতককে আটক করে হত্যাকান্ডের আলামত উদ্ধারের পর পুলিশে সোর্পদ করেছে। মৃতদেহ পোস্টমর্টেমের জন্য পুলিশ উদ্ধার করে নিয়ে যায়। এই ঘটনার পর এলাকায় চরম উদ্বেগ-উৎকণ্ঠার সৃষ্টি হয়েছে।
২৮ জুলাই বিকাল ৪টারদিকে কক্সবাজার র‌্যাব-১৫ এর চৌকষ একটি আভিযানিক দল হ্নীলা আল জামেয়া দারুস সুন্নাহ মাদ্রাসায় নুরানী বিভিাগে ৩য় শ্রেণী পড়ুয়া ফারিহা জান্নাত (৯) এর অপহরণে অভিযুক্ত মুফতি আলী আহমদের পুত্র মোঃ ইরফান (১৮) কে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ চালায়। পরে ধৃত ব্যক্তির স্বীকারোক্তিতে উক্ত মাদ্রাসার নালায় মাদ্রাসা ছাত্রী ফারিহার মৃতদেহ পাওয়া যায়। বিষয়টি টেকনাফ থানা পুলিশকে অবহিত করা হলে টেকনাফ মডেল থানার অফিসার্স ইনচার্জ মোহাম্মদ জোবাইর সৈয়দ এর নেতৃত্বে একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে আসেন। পরে র‌্যাব-পুলিশের উপস্থিতিতে ঘাতক ইরফান মেয়ে শিশুর লুকিয়ে রাখা কাপড় উদ্ধার করে দেন। রাত সাড়ে ৯টারদিকে পুলিশ সুরতহাল রিপোর্ট তৈরীর পর মৃতদেহ পোস্টমর্টেমের জন্য নিয়ে যায়।
গত ২৭ জুলাই সন্ধ্যা পৌনে ৬টারদিকে ছানা উল্লাহ-জেসমিন দম্পতির মেয়ে ফারিহা জান্নাতকে অপহরণকারী চক্র তুলে নিয়ে যায়। পরে মায়ের নিকট ফোন করে ৫লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবী করে। অপহৃতের পরিবারের পক্ষ থেকে বিষয়টি থানা পুলিশকে রাতেই লিখিতভাবে অবহিত করা হয়। এরপর র‌্যাব-পুলিশ উদ্ধার তৎপরতা শুরু করে। এই পর সন্দেহভাজন ইরফানকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হলে বেরিয়ে আসে মেয়ে শিশু ফারিহা অপহরণ পরবর্তী নারকীয় ঘটনা। অপহৃত শিশুকে আল জামেয়া দারুস সুন্নাহ মাদ্রাসার ২২নং কক্ষে আটকে রেখে জোরপূর্বক ধর্ষণ করার সময় চিৎকার করলে ঘাতক ক্ষুদ্ধ হয়ে শিশুকে গলাটিপে খুন করে। খুনের ক্লু নিরুদ্দেশ করার জন্য ঐ শিশুর কাপড় খুলে পলিথিনে মুড়িয়ে কাঁদার মধ্যে লুকিয়ে রাখা হয়।
রাতেই কক্সবাজার র‌্যাব-১৫ অধিনায়ক ভারপ্রাপ্ত মেজর সৈয়দ শাফিকুল হক সংবাদ সম্মেলন করে এই লোমহর্ষক ঘটনার বিবরণ দিয়ে ঘাতক ইরফানকে আটক করে থানা পুলিশে হস্তান্তরের বিষয়টি নিশ্চিত করেন।
তবে কি কারণে এই ধরণের লোমহর্ষক ঘটনার সুত্রপাত তা নিয়ে জনমনে ক্রিয়া-প্রতিক্রিয়া ও সমালোচনা চলছে। হৃদয় বিদারক এই ঘটনার পর সাধারণ অভিভাবকদের মধ্যে চরম উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা লক্ষ্য করা যাচ্ছে।


আরো বিভন্ন নিউজ দেখুন

ই-পেপার

আজকের দিন-তারিখ

  • শনিবার (দুপুর ১:৪৯)
  • ২৫শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  • ১৭ই জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি
  • ১১ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ (গ্রীষ্মকাল)