• বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ১০:২৩ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ খবর
ঈদগাঁও উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ৩টি পদে মোট ১৭জনের মনোনয়নপত্র দাখিল লাঞ্ছিত জীবনগাঁথা ঈদগাঁওতে ডিসি ও এস পি, নির্বাচন সুষ্ঠু ও নির্বিঘ্ন করতে প্রশাসন বদ্ধপরিকর উপজেলা নির্বাচনকে ঘিরে ঈদগাঁওতে নতুন পুরাতন প্রার্থীদের দৌঁড় ঝাঁপ ইয়াবা ও দালালীর জাদুতে আলাদীনের চেরাগপ্রাপ্ত কথিত সাংবাদিক নেতা কেতারা কি আইনের উর্ধ্বে? জাতীয় শুদ্ধাচার পুরস্কার পেলেন পুলিশ পরিদর্শক মোঃ আব্দুল হাই ৩১ দিন পর অক্ষত অবস্থায় মুক্ত জাহাজসহ জিম্মি থাকা ২৩ নাবিক জামিন প্রাপ্ত মাদক ব্যবসায়ীরা বেপরোয়া, ঠেকানো যাচ্ছে না আগ্রাসন পেটে ভাত নেই,”গরিবের আবার কিসের ঈদ” কক্সবাজারে মাদক পতিতার মজুদ,আনন্দ বাড়াতে উড়াল দিচ্ছে ধনীরা কুতুবদিয়ায় পানিতে ডুবে একই পরিবারের দুই শিশুর মৃত্যু

মাঠে নামার স্বল্প সময়ে চকরিয়া পেকুয়ায় সাবেক জজ আমিনুল হকের চমক

এম নুরুল আমিন টিপু, চকরিয়া :
আপডেট : বুধবার, ৮ নভেম্বর, ২০২৩


এম নুরুল আমিন টিপু,চকরিয়াঃ


কক্সবাজার ১ চকরিয়া-পেকুয়ার সংসদীয় আসনে মনোনয়ন দৌড়ে   কেন্দ্রীয় ও জেলা পর্যায়ের শীর্ষ নেতাদের সাথে লবিং সহ স্বতঃস্ফূর্ত ভাবেই নৌকা প্রতিকের আশায় মাঠ ঘাট চষে বেড়াচ্ছেন অবসরপ্রাপ্ত জেলা ও দায়রা জজ আমিনুল হক।
৭ই নভেম্বর মঙ্গলবার তিনি  জেলা আওয়ামীলীগের সঙ্গে নির্বাচনি ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কক্সবাজারে শুভ আগমনের  জনসভা সফল করার লক্ষে আলাপে ছুটে এসে কক্সবাজারের বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গের সাথে যোগাযোগ করেন।
এসময় মুঠোফোনে তিনি কক্সবাজারবাণী সম্পাদকের সাথে আলাপে জানান,আইকনিক ট্রেন ষ্টেশন দেখতে আসলাম।
জানাগেছে,
সাধারণত একজন জজ অবসরপ্রাপ্ত হওয়ার পর হয় বিদেশে অবস্থান করে।
নয় অনেকে উচ্চ আদালতে আইন পেশায় যুক্ত হয়ে বাকি জীবন কাটিয়ে দেন।
কিন্তু
ব্যতিক্রম দেখা গেছে,জজ আমিনুল হকের ক্ষেত্রে।
তার বাবা- চাচারা দেশের  স্বাধীনতার জন্য যুদ্ধ করেছেন। তাঁর পিতা দীর্ঘ  ১৫ বছর বিএমচর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হিসেবে মানুষের সেবা  করে গেছেন।
এ সুত্র উপলব্ধি করে জনাব আমিনুল হক,  নিজের অবসর জীবনকে তার নিজ এলাকা (চকরিয়া -পেকুয়া)র উন্নয়ন ও  জনসেবার জন্য উৎসর্গ করে দিতে চান।।  এই কারনে তিনি আসন্ন দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনে চকরিয়া পেকুয়া আসন থেকে সংসদ নির্বাচন করার ইচ্ছা পোষণ করেন।
ফলে ইতিমধ্যে পুরো সংসদীয় নির্বাচনী এলাকার গণমানুষের মাত্রা বাড়িয়ে দিয়ে তিনি সর্বত্র আলোচনায় চলে আসেন।
জানাগেছে,
ছাত্র জীবনে তিনি ছাত্রলীগের রাজনীতির সাথে যুক্ত থাকার কারণে  চাকুরী থেকে অবসরপ্রাপ্ত হয়ার পর পর বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাথে যুক্ত  হয়ে পড়েন।
এর ধারা বাহিকতায় তিনি  দলের হাই কমান্ডের দিক নিদর্শনায় ভোটের মাঠে নেমে পড়েন।
তিনি  আশাবাদী এবারে সংসদ নির্বাচন জননেত্রী শেখহাসিনা তাকে অবশ্যই মুল্যায়ন করে  নৌকার মনোনয়ন  দিবেন।
তিনি  বলেন, মানুষ সবসময় পরিবর্তন শীল। তাই  যোগ্য প্রার্থী নিবাচিত করে থাকেন।  দল ও জনগণের নির্বাচনে তিনি যোগ্য  প্রার্থী হিসাবে নিজকে দাবি করেন মানুষের সেবা করার আশা ব্যক্ত করেন  কক্সবাজারবাণীর কাছে।
অল্প সময়ে কোন ধরনের তিনি রাজনৈতিক দলের নেতাদের সহায়তা না নিয়ে  নিজে একজন কর্মী হয়ে দলীয় নেতাকর্মীর সাথে  যোগাযোগ ও সাধারণ  মানুষের পাশে ছুটে চলছেন অনবরত।
এতে স্বল্প সময়ে ব্যাপক সাড়াও পাচ্ছেন।
সকল -সন্ধ্যা  চায়ের কাপে ঝড় উঠেছে এই  জজক সাহেব  নিয়ে।
একজন  সমাজ সেবকের পুত্র হিসেবে তিনি ও  নিজের জন্য  কিছু  না করেন নিজের  বাকি  জীবন টা  তার এলাকার মানুষের জন্য ও দেশের কল্যাণে কাজ করতে চান। এব্যাপারে  তিনি  সকল শ্রেণী পেশার মানুষের সহায়তা ও দোয়া কামনা করেছেন।


আরো বিভন্ন নিউজ দেখুন