• বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১২:৪২ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ খবর
টেকনাফের ওসি ওসমান গনির নেতৃত্বে ইয়াবার বড় চালান উদ্ধার কুতুবজোম দাখিল মাদ্রাসায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত টেকনাফের হ্নীলা স্টেশনে এমপি বদির নিজস্ব অর্থায়নে স্থাপিত মাছ বাজার উচ্ছেদে জনমনে ক্ষু্দ্ধ প্রতিক্রিয়া লামায় জাতীয় প্রাথমিক শিক্ষা পদক প্রতিযোগিতা পুরুষ্কার বিতরণ সম্পন্ন হুইপ কমল এমপি’র সহকারী একান্ত সচিব পদে নিয়োগ পেলেন মিজানুর রহমান কৃষকদের উৎপাদিত পণ্যের টেকসই মার্কেট লিংকেজ এবং পেশাগত নিরাপত্তা নিশ্চিত বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত চকরিয়ার ওসি নাদিম আলী আবারও কক্সবাজারের শ্রেষ্ঠ অফিসার ইনচার্জ মনোনীত জমকালো আয়োজনে লামায় দৈনিক সাঙ্গুর প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন কুতুবদিয়া লেমশীখালী উচ্চ বিদ্যালয়ে জাতীয় শিক্ষা পদক সংবর্ধনা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত ডাল্টন জহির FBCCI সিভিল এভিয়েশন অ্যান্ড ট্যুরিজম স্ট্যান্ডিং কমিটি 2023 – 2025 কো চেয়ারম্যান নির্বাচিত

উখিয়ায় রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অগ্নিকান্ডে ৫০ হাজার মানুষের দূর্ভোগ, হতাহত ১০,পুড়ে গেছে ৬ হাজার বসত ঘর

কক্সবাজারবানী’র সাথে থাকুন
আপডেট : মঙ্গলবার, ২৩ মার্চ, ২০২১

ফরিদুল মোস্তফা খান :
ঘর নেই, বাড়ি নেই, নেই মাথা গুজার ঠাঁই হয়ে গেছে কক্সবাজারের উখিয়া বালুখালীর প্রায় ৫০ হাজার রোহিঙ্গা।

সোমবারের আগের দিনও ক্যাম্পে পরিবার পরিজন নিয়ে ছিল তাদের সুখের সংসার।
বিকেলে আগুনে পুড়ে তাদের সেই বসতবাড়ি ঝুঁপড়ি ঘর গুলো পুড়ে যাওয়ায় খোলা আকাশের নিচে রজনী কাটাচ্ছেন ভুক্তভোগীরা।
আশপাশের লোকজন যাই দিচ্ছেন তাই আকাশের নিচে মাঠিতে বসে খেলেও একটু হেলান বা মাথা গুজার ঠাঁই নেই হতভাগ্য এসব হাজার হাজার নারী পুরুষ বৃদ্ধ ও শিশুদের।
ফলে অবর্ণনীয় দুর্ভোগে পড়েছেন তারা।
অগ্নিকান্ডের ঘটনায় উদ্ধার করা লাশ নিয়েও চলছে শোকের মাতম।
সোমবার বিকেল প্রায় তিনটা থেকে রাত প্রায় সাড়ে ১১ টা পর্যন্ত পুড়ে ছাই হয়ে গেছে কয়েকটি ব্লকের প্রায় ছয় হাজারের মত রোহিঙ্গা ঝুপড়ি ঘর।
পুড়ে গেছে ক্যাম্প অভ্যন্তরের অনেক মসজিদ, মাদ্রাসা, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও দোকানপাট।
এ ঘটনায় প্রায় অর্ধ লক্ষাধিক রোহিঙ্গা নারী পুরুষ হারিয়েছে তাদের মাথাগুজার ঠাই বসত ঘর।
২২ মার্চ সোমবার রাত ১২ টা এই রিপোর্ট লেখাখালীন সময়ে তারা সংশ্লিষ্ট ক্যাম্প এলাকায় দিকবিদিক পালিয়ে মানবেতর জীবনযাপন করছিল।
কেউ সর্বস্ব হারিয়ে অনেকটা দেওলিয়ার মত হাউ মাউ করে কাঁদছে।
স্থানীয় প্রশাসন, বিজিবি, সেনাবাহিনী,পুলিশ, দমকল বাহিনী সহ আশপাশের লোকজন প্রানপন চেষ্টা করে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হলেও ক্ষতিগ্রস্থ রোহিঙ্গা পল্লীতে হাহাকার অবস্থা বিরাজ করছে।
চরম দুর্ভোগে রয়েছেন ভস্মীভূত হাজার হাজার নারী পুরুষ বৃদ্ধ ও শিশু।
পরনের এক কাপড়ে তারা নিঃস্ব হয়ে পড়েছেন।

সাংবাদিক ফরিদুল মোস্তফা খান সম্পাদিত


আরো বিভন্ন নিউজ দেখুন