• বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ০৭:১৯ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ খবর
ঈদগাঁও উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ৩টি পদে মোট ১৭জনের মনোনয়নপত্র দাখিল লাঞ্ছিত জীবনগাঁথা ঈদগাঁওতে ডিসি ও এস পি, নির্বাচন সুষ্ঠু ও নির্বিঘ্ন করতে প্রশাসন বদ্ধপরিকর উপজেলা নির্বাচনকে ঘিরে ঈদগাঁওতে নতুন পুরাতন প্রার্থীদের দৌঁড় ঝাঁপ ইয়াবা ও দালালীর জাদুতে আলাদীনের চেরাগপ্রাপ্ত কথিত সাংবাদিক নেতা কেতারা কি আইনের উর্ধ্বে? জাতীয় শুদ্ধাচার পুরস্কার পেলেন পুলিশ পরিদর্শক মোঃ আব্দুল হাই ৩১ দিন পর অক্ষত অবস্থায় মুক্ত জাহাজসহ জিম্মি থাকা ২৩ নাবিক জামিন প্রাপ্ত মাদক ব্যবসায়ীরা বেপরোয়া, ঠেকানো যাচ্ছে না আগ্রাসন পেটে ভাত নেই,”গরিবের আবার কিসের ঈদ” কক্সবাজারে মাদক পতিতার মজুদ,আনন্দ বাড়াতে উড়াল দিচ্ছে ধনীরা কুতুবদিয়ায় পানিতে ডুবে একই পরিবারের দুই শিশুর মৃত্যু

দৌলতখানে জমি দখল করতে কবর স্থানের নামে সাইন বোর্ড ঝুলিয়েছে প্রতিপক্ষ

কক্সবাজারবানী’র সাথে থাকুন
আপডেট : শনিবার, ৬ মার্চ, ২০২১

ভোলা প্রতিনিধি :
ভোলা দৌলতখান উপজেলার পশ্চিম জয়নগর ইউনিয়নের ৫ নং ওয়ার্ডে মৃত মফিজল হকের ছেলে সেলিম কাজী (৫৫) একই এলাকার তোফায়েল মিয়ার কাছ থেকে ক্রয় কৃত জমি দখল করার জন্য অভিনব কায়দা করে কবর স্থানের নামকরন করে সাইনবোর্ড ঝুলিয়ে দখলের পাঁয়তারা করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

সেলিম কাজীর পরিবার অভিযোগ করেন, স্থানীয় তোফায়েল মিয়ার , পশ্চিম জয়নগর মৌজা, জে এল নং ২৪, খতিয়ান ২৯৫, দাগ নং ৩৪৯৯, কাছ থেকে প্রায় ৩০ বছর পূর্বে সেলিম কাজী ৫ শতাংশ জমি ক্রয় করে ওই জমিতে গাছ-পালা লাগিয়ে ভোগ দখলে রয়েছেন।
বেশকিছু দিন ধরে স্থানীয় একটি ভুমি দস্য চক্র সেলিম কাজীর জমি দখলের পায়তারা করে আসছে।
এরই মধ্যে গত (১৯ ডিসেম্বর ২০২০ইং) শনিবার সকাল ১১ টার দিকে মাসুদ সিকদার, ননী সিকদার, শাজাহান সিকদারসহ একটি সন্ত্রাসী বাহিনী কাজী সেলিমের বাগানের গাছ কাটতে আসলে বাধা দিলে সেলিম কাজীকে একা পেয়ে মারধরের চেষ্টা চালায়। বিভিন্ন রকম ভয়ভীতি ও হত্যার হুমকি দিলে তার ডাক চিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে এসে উদ্ধার করেন। ওই ঘটনায় ভোলা নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে সেলিমকাজী বাদাী হয়ে ৩ জনকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করেন। যাহার নং এমপি ৭২/ ২০২০ইং।
এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে সেলিম কাজীকে বেকায়দায় ফেলতে ষড়যন্ত্রের জাল বুনতে থাকে ভূমিদস্যু চক্রটি। ভূমিদস্যুরা একত্রিত হয়ে স্থানীয় শরিফ মিজির ছেলে আব্বাস উদ্দিনকে বাদী কেরে সেলিম কাজী ও তার ছেলে জাহিদকে আসামী করে দৌলতখান থানায় একটি মামলা করেন। ওই মামলায় স্বেচ্ছায় বিজ্ঞ আদালতে হাজির হতে গেলে সেলিম কাজীর জামিন নামঞ্জুর করে জেলহাজতে পাঠায় আদালত। এই সুযোগে ভূমিদস্যুরা ওই জমিতে বাঁশের বেড়া দিয়ে কবরস্থানের নামকরণ করে সাইনবোর্ড ঝুলিয়ে দেয়। বর্তমানে সেলিম কাজীর পরিবার অসহায় মানবেতর জীবনযাপন করছেন।

এ বিষয়ে জানতে ঘটনাস্থলে গেলে অভিযুক্ত কাউকেই খুঁজে পাওয়া যায়নি।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা বাংলাবাজার পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ গোলাম মোস্তফা জানান, বিবাদপূর্ণ জমির কাগজপত্র যাচাই-বাছাই করে ঘটনা তদন্ত শেষে আদালতে প্রতিবেদন দাখিল করা হবে।
এ বিষয়ে ভুক্তভোগী পরিবার বিজ্ঞ আদালতের কাছে ন্যায় বিচার দাবি করছেন।


আরো বিভন্ন নিউজ দেখুন