• শনিবার, ০২ মার্চ ২০২৪, ০৬:৩৭ অপরাহ্ন
সর্বশেষ খবর
বর্নাঢ্য আয়োজনে হোয়াইক্যং ইউনিয়ন সমিতির বার্ষিক মিলন মেলা ও পুরস্কার বিতরণ সম্পন্ন  লামায় মানবজমিন-এর প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত ঈদগাঁওর সুপারি গলির আশপাশ ময়লা আবর্জনায় ভরপুর : ধ্বংস হচ্ছে পরিবেশ  উখিয়ায় আলোচিত সৈয়দ করিম হত্যাকন্ডের আসামী  সালামত উল্লাহ গ্রেফতার : রক্তাক্ত ছুরি ও নিহতের পরিহিত জামা উদ্ধার পুলিশ পদক পেলেন কক্সবাজার পুলিশ সুপার মাহফুজুল ইসলাম। পুলিশ সপ্তাহ ২০২৪’ উপলক্ষে পদক পেলেন র‌্যাব-১৫ এর সিইও সহ ৩ কর্মকর্তা টেকনাফ থানার ওসি ওসমান গনির নেতৃত্বে পুলিশের অভিযানে দুইটি অস্ত্র উদ্ধার। কুরআনের পথে না চললে পৃথিবীতে শান্তি প্রতিষ্ঠা হবে না : ক্বারী আবুল কাসেম সরকার বড় ভাইকে মারধরের ঘটনায় ২ বছরের সাজাপ্রাপ্ত আনাছের সাজা আপিলেও বহাল টেকনাফে কোরিয়া সার্ভিসে ইয়াবা আটক নিয়ে চলছে তোলপাড় : চলছে তদবির

মোবাইলের দ্বন্ধে ছাত্রদল নেতা খুন

নাজিম উদ্দিন:পেকুয়া
আপডেট : শনিবার, ২ ডিসেম্বর, ২০২৩

নাজিম উদ্দীন কুতুবী, পেকুয়া


কক্সবাজারের চকরিয়া মোবাইল বেচা-কেনার দ্বন্দ্বের জেরে ছুরিকাঘাতে ছাত্রদল নেতা আসহাবুল করিম ওরফে জিহাদ (২০) খুন হয়েছেন।

শুক্রবার রাত আটটার দিকে উপজেলার কোনাখালী ইউনিয়নের মরংঘোনা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত জিহাদ পেকুয়া উপজেলার সদর ইউনিয়নের সিকদারপাড়া এলাকার মকসুদুল করিম ওরফে বাচ্চুর ছেলে। তিনি পেকুয়া শহীদ জিয়াউর রহমান উপকূলীয় কলেজ ছাত্রদলের সভাপতি ছিলেন। এ ঘটনায় মো. সোহান (২৩) নামের একজনকে আটক করেছে পুলিশ।

স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, কোনাখালী ইউনিয়নের চোরাই মোবাইল বেচা-কেনার প্রসিদ্ধ স্থান ‘সিঙ্গাপুর মার্কেট’ থেকে কয়েক দিন আগে একটি মুঠোফোন কেনেন জিহাদ। মুঠোফোনটি চার্জে সমস্যা করায় তা ফেরত দিয়ে টাকা চান তিনি। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে গত বৃহস্পতিবার চোর চক্রের কয়েকজনকে পেকুয়া থানা এলাকায় পেয়ে জিহাদ ও তাঁর বন্ধুরা মিলে মারধর করেন। শুক্রবার সন্ধ্যায় জিহাদ ও তাঁর দুই বন্ধু মোটরসাইকেল নিয়ে চকরিয়া উপজেলার মরংঘোনা এলাকায় যান। সেখানে চোর চক্রের সদস্যরা জিহাদকে ধরে এলোপাতাড়ি ছুরিকাঘাত করে। এ সময় তার দুই বন্ধু মাতামুহুরী নদী সাঁতরে পালিয়ে যায়। ছুরিকাঘাতের পর পালিয়ে যাওয়ার সময় মো. সোহান নামের একজনকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেন স্থানীয় লোকজন। পরে আহত জিহাদকে উদ্ধার করে পেকুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হলে চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।

পেকুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা মুজিবুর রহমান বলেন, নিহত তরুণকে মৃত অবস্থায় হাসপাতালে আনা হয়। তাঁর বুকে একাধিক ছুরিকাঘাতের চিহ্ন ছিল।

পেকুয়া থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মো. মফিজুল ইসলাম বলেন, নিহতের বুকে চারটি ছুরিকাঘাতের চিহ্ন আছে। মাথায়ও ভারী বস্তুর আঘাত আছে। এ ছাড়া বুকের এক পাশ, পিঠ ও ডান হাতে জখমের চিহ্ন আছে। আর ডান হাতের চামড়া ছিলে গেছে।

চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ মোহাম্মদ আলী বলেন, কলেজছাত্র জিহাদ মোবাইল কেনাবেচার দ্বন্দ্বে খুন হয়েছেন। এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত একজনকে আটক করা হয়েছে। অন্যদের ধরতে অভিযান চলছে। নিহতের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

সাংবাদিক ফরিদুল মোস্তফা খান সম্পাদিত


আরো বিভন্ন নিউজ দেখুন