• বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ০৫:২৬ অপরাহ্ন
সর্বশেষ খবর
ঈদগাঁও উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ৩টি পদে মোট ১৭জনের মনোনয়নপত্র দাখিল লাঞ্ছিত জীবনগাঁথা ঈদগাঁওতে ডিসি ও এস পি, নির্বাচন সুষ্ঠু ও নির্বিঘ্ন করতে প্রশাসন বদ্ধপরিকর উপজেলা নির্বাচনকে ঘিরে ঈদগাঁওতে নতুন পুরাতন প্রার্থীদের দৌঁড় ঝাঁপ ইয়াবা ও দালালীর জাদুতে আলাদীনের চেরাগপ্রাপ্ত কথিত সাংবাদিক নেতা কেতারা কি আইনের উর্ধ্বে? জাতীয় শুদ্ধাচার পুরস্কার পেলেন পুলিশ পরিদর্শক মোঃ আব্দুল হাই ৩১ দিন পর অক্ষত অবস্থায় মুক্ত জাহাজসহ জিম্মি থাকা ২৩ নাবিক জামিন প্রাপ্ত মাদক ব্যবসায়ীরা বেপরোয়া, ঠেকানো যাচ্ছে না আগ্রাসন পেটে ভাত নেই,”গরিবের আবার কিসের ঈদ” কক্সবাজারে মাদক পতিতার মজুদ,আনন্দ বাড়াতে উড়াল দিচ্ছে ধনীরা কুতুবদিয়ায় পানিতে ডুবে একই পরিবারের দুই শিশুর মৃত্যু

চাঞ্চল্যকর হত্যা ও লাশ গুম মামলার ৬ ঘন্টার মধ্যে প্রধান আসামি বোরহান র‍্যাবের হাতে আটক,হত্যার সরঞ্জাম উদ্ধার

বানী ডেস্ক:
আপডেট : শুক্রবার, ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০২৩


কক্সবাজারের শুয়োর মরা খালে চাঞ্চল্যকর হত্যা ও কচুরিপানার নিচে লাশ গুম মামলার ৬ ঘন্টার মধ্যে প্রধান আসামি বোরহানকে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব-১৫; হত্যায় ব্যবহৃত বৈঠা ও হাসুয়া উদ্ধার।

‘‘বাংলাদেশ আমার অহংকার’’ এই স্লোগান নিয়ে র‌্যাব প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকেই খুন, ধর্ষণ, অপহরণ, জলদস্যু, ডাকাত, চুরি-ছিনতাই, সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজ, জঙ্গী দমন, অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার ও মাদকসহ দেশে বিরাজমান বিভিন্ন অপরাধ নির্মূলে উল্লেখযোগ্য অবদান রেখে আসছে। র‌্যাব-১৫ দায়িত্বপূর্ণ এলাকায় বিরাজমান এ সকল অপরাধের সাথে জড়িত অপরাধীদের গ্রেফতারের লক্ষ্যে সব সময় অত্যন্ত অগ্রণী ভূমিকা পালন এবং আন্তরিকতার সহিত নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে।

এরই ধারাবাহিকতায় কক্সবাজার জেলার চকরিয়া থানাধীন শুয়োর মরা খালে যুবককে কুপিয়ে হত্যা ও কচুরিপানার নিচে লাশ গুমের চাঞ্চল্যকর ঘটনায় দায়েরকৃত মামলার প্রধান আসামি মো. বোরহান উদ্দিন (২২) কে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব-১৫। এ সময় হত্যায় ব্যবহৃত বৈঠা এবং হাসুয়া ও উদ্ধার করা হয়।

শুক্রবার (২৯ সেপ্টেম্বর) ভোর ৫:১০ ঘটিকায় গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে কক্সবাজার জেলার মহেশখালী থানাধীন ষাইট মারা এলাকার সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন দুর্গম পাহাড়ি এলাকায় চিরুনি অভিযান পরিচালনা করে চকরিয়া থানাধীন শুয়োর মরা খালে সংঘটিত চাঞ্চল্যকর রাহাত হত্যা মামলার প্রধান আসামি মো. বোরহান উদ্দিন (২২), পিতা-মোঃ সৈয়দ আলী, মাতা-রেনু আরা বেগম, সাং-আব্দুল হাকিম পাড়া, ০৮নং ওয়ার্ড, কোনাখালী ইউনিয়ন, থানা-চকরিয়া, জেলা-কক্সবাজার’কে গ্রেফতার করে র‍্যাব-১৫, সিপিএসসি কক্সবাজার ক্যাম্পের একটি চৌকস আভিযানিক দল। পরবর্তীতে গ্রেফতারকৃত বোরহানের স্বীকারোক্তি অনুযায়ী শুয়োর মরা খাল সংলগ্ন ঝোপ থেকে হত্যায় ব্যবহৃত বৈঠা ও হাসুয়া উদ্ধার করা হয়।

র‍্যাব-১৫ বলেন,গ্রেফতারের পর প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে রাহাতকে হত্যার কথা অকপটে স্বীকার করে নেন বোরহান। তিনি আরো জানান যে, মূলত পূর্ব বিরোধের জের ধরে নিকটাত্মীয় রাহাতকে হত্যার পরিকল্পনা করেন তিনি। পূর্বপরিকল্পনা অনুযায়ী গত ২৬ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যা রাতে রাহাতকে একাকী পেয়ে প্রথমে বৈঠা দিয়ে মাথায় আঘাত ও পরে হাসুয়া দিয়ে কুপিয়ে মৃত্যু নিশ্চিত করার পর খালের কচুরিপানার নিচে মৃতদেহ লুকিয়ে ফেলেন।

গতকাল ২৮ সেপ্টেম্বর রাত ১১: ৩০ ঘটিকায় নিহতের বাবা আলী হোসেন বাদী হয়ে বোরহানকে ১ নং আসামি করে দুই জনের বিরুদ্ধে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। এর পরপরই গ্রেফতার অভিযান শুরু করে র‍্যাব। এরই ধারাবাহিকতায় আজ ভোর ৫ ঘটিকায় র‍্যাব-১৫ এর আভিযানিক দল প্রায় তিন কিলোমিটার পাহাড়, খাল, ঘন ঝোপ-জঙ্গল পায়ে হেঁটে অতিক্রম করে মহেশখালী থানাধীন ষাইট মারা এলাকার দুর্গম পাহাড়ে বোরহানের অবস্থান স্থলে পৌঁছাতে সক্ষম হয়। র‍্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে দৌড়ে পালানোর সময় তাকে ধাওয়া করে আটক করা হয়। এর মধ্য দিয়ে হত্যার ঘটনায় মামলা দায়েরের ৬ ঘন্টা পার হওয়ার আগেই আসামিকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হলো র‍্যাব।

উল্লেখ্য, গত ২৭ সেপ্টেম্বর বুধবার সকাল ৭টার দিকে কক্সবাজার জেলার চকরিয়া থানাধীন কোনাখালী ইউনিয়নের শুয়োর মরা খালের কচুরিপানার ভেতর থেকে হোসেন রাহাত (২৩) নামীয় যুবকের মরদেহ উদ্ধার করে স্থানীয়রা। নিহত রাহাত কোনাখালী ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ড আবদুল হাকিম পাড়ার আলী হোসেনের ছেলে।

র‍্যাব জানাই, গ্রেফতারকৃত আসামীর বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।


আরো বিভন্ন নিউজ দেখুন