• বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ০২:৪৯ অপরাহ্ন
সর্বশেষ খবর
ঈদগাঁও উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ৩টি পদে মোট ১৭জনের মনোনয়নপত্র দাখিল লাঞ্ছিত জীবনগাঁথা ঈদগাঁওতে ডিসি ও এস পি, নির্বাচন সুষ্ঠু ও নির্বিঘ্ন করতে প্রশাসন বদ্ধপরিকর উপজেলা নির্বাচনকে ঘিরে ঈদগাঁওতে নতুন পুরাতন প্রার্থীদের দৌঁড় ঝাঁপ ইয়াবা ও দালালীর জাদুতে আলাদীনের চেরাগপ্রাপ্ত কথিত সাংবাদিক নেতা কেতারা কি আইনের উর্ধ্বে? জাতীয় শুদ্ধাচার পুরস্কার পেলেন পুলিশ পরিদর্শক মোঃ আব্দুল হাই ৩১ দিন পর অক্ষত অবস্থায় মুক্ত জাহাজসহ জিম্মি থাকা ২৩ নাবিক জামিন প্রাপ্ত মাদক ব্যবসায়ীরা বেপরোয়া, ঠেকানো যাচ্ছে না আগ্রাসন পেটে ভাত নেই,”গরিবের আবার কিসের ঈদ” কক্সবাজারে মাদক পতিতার মজুদ,আনন্দ বাড়াতে উড়াল দিচ্ছে ধনীরা কুতুবদিয়ায় পানিতে ডুবে একই পরিবারের দুই শিশুর মৃত্যু

কক্সবাজারে এনজিও সংস্থা ফ্রেন্ডশিপকে ঘিরে কার অপকর্ম কে ঠেকাবে: নতুন মোড়কে সনদ পেলেন কারা

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ
আপডেট : রবিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০২৩


নিজস্ব প্রতিবেদকঃ


কক্সবাজার জেলার ১৮০ জন ছেলে-মেয়েকে চাকরিচ্যুত করে সরকারি বন্ধের দিন গত শুক্রবারে ইন্টারভিউ নেওয়ার মাধ্যমে নিয়োগ বাণিজ্যের অভিযোগ উঠেছে ফ্রেন্ডশিপ এনজিও’র বিরুদ্ধে। স্বেচ্ছাচারিতা, অনিয়ম-দুর্নীতি, মনোরঞ্জন ও রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনবিরোধী কর্মকাণ্ড বর্তমানে এনজিও ফ্রেন্ডশিপের অলংকারে পরিণত হয়েছে। এছাড়া এনজিওটি সরকারি নির্দেশনা উপেক্ষা করে যাচ্ছে প্রতিনিয়ত। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, কক্সবাজার জেলার বাইরের চাকরি প্রত্যাশীদের ইন্টারভিউতে ডেকে অর্থ আদান প্রদান/দরকষাকষির বৈঠকে এনে নিয়োগ বাণিজ্য করে। নগদ অর্থ লেনদেন করলেই নিমিষেই চাকরি জুটে জেলার বাইরের ছেলেমেয়েদের। স্থানীয়রা জানান, ফ্রেন্ডশিপ এনজিওতে হাতেগোনা যে কয়েকজন উখিয়া-টেকনাফ তথা কক্সবাজারের স্থানীয় লোকজন চাকরি করে তারা সবাইই একদম নিম্ন পজিশনে। তাদেরও সুকৌশলে বিভিন্ন অজুহাতে চাকরিচ্যুত করা হয়। অনুসন্ধানে জানা গেছে, জেলা প্রশাসন, আরআরআরসি অফিস ও স্থানীয় উপজেলা প্রশাসনের নির্দেশনা উপেক্ষা করে নিজেদের ইচ্ছে মতো, নিজেদের সৃষ্টি করা নিয়মেই চলে ফ্রেন্ডশিপ নামক এই লুটপাটকারী এনজিওটি মানবিক কাজ এনজিওতে চলমান রয়েছে ৬ প্রজেক্ট, যার মধ্যে চারটি হেলথ প্রজেক্ট, একটি একটি এডুকেশন প্রজেক্ট ও একটি ক্লাবো প্রজেক্ট। স্থানীয়ভাবে এডুকেশন প্রজেক্ট দেখভাল করেন প্রোগ্রাম ম্যানেজার মহসিনুল আলম ও হেলথ প্রজেক্ট দেখভাল করেন প্রোগ্রাম ম্যানেজার ডা. আশিক। স্থানীয়দের ৪০ শতাংশ চাকরি দেওয়ার জন্য সরকারি নির্দেশনা থাকলেও তা মানছে না এনজিও ফ্রেন্ডশিপ। এডুকেশন ও হেলথ প্রজেক্টগুলোতে দায়িত্বশীল কর্মকর্তাদের আত্মীয়স্বজন ছাড়া কারো চাকরি হয় না। ২০২২ সালে নারী স্টাফদের যৌন হয়রানি করার প্রতিবাদে এডুকেশন প্রজেক্টের কিছু স্টাফ আন্দোলন গড়ে তুলে ফ্রেন্ডশিপ এনজিও অফিস ঘেরাও করেছিল। পরে ফ্রেন্ডশিপ এনজিও কর্তৃপক্ষ ক্ষিপ্ত হয়ে ওই প্রজেক্টের ৩০ জন স্টাফকে বিনা নোটিশে একসাথে সাসপেন্ড করে দেন। চট্টগ্রাম বিভাগীয় পরিবেশ অধিদপ্তরের পরিচালক মো. মফিদুল ইসলাম আমলে নিয়ে দ্রুতভাবে ওই হাসপাতালের নির্মাণকাজ বন্ধ এবং দেড় কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ পরিশোধ করার জন্য ফ্রেন্ডশিপ হাসপাতালের এমডি রুনা খানের বরাবর নোটিশ প্রদান করা কথা চট্টগ্রাম বিভাগীয় পরিবেশ অধিদপ্তরের পরিচালক ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেন। ফ্রেন্ডশিপ এনজিও এসব অনিয়ম দ্রুত বন্ধ করতে এনজিও ব্যুরো, আরআরআরসি, কক্সবাজার জেলা প্রশাসকসহ কর্তৃপক্ষে জরুরি হস্তক্ষেপ কামনা করেছে সচেতন মহল।

এদিকে উক্ত সংবাদটি যিনি পরিবেশ করছেন তার নেতৃত্ব পৃথক একটি সাংবাদিক প্রশিক্ষণের অজুহাতে সনদ বিতরণের ঘটনায় কক্সবাজার জুড়ে বাদ পড়া পেশাদার সাংবাদিকদের মাঝে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।
তারা বলেন নগদ টাকার বান্ডিল কত বড় হলে এমন ঘটনা ঘটতে পারে।
উল্লেখ্য এই ব্যাপারে ফ্রেন্ডশীফের ডেপুটি ডিরেক্টর এন্ড হেড অব কমিউনিকেশন তানজিলা শারমিনের সাথে যোগাযোগ করা হলে, স্থানীয় প্রেসক্লাবের কথিত কয়েকজন নেতার নাম ধরে তিনি বলেন, এখানে কারা বাদ পড়েছেন বা কারা প্রশিক্ষণ নিয়েছেন তা উনি জানেননা।
এক পর্যায়ে তিনি বাদ পড়া পেশাদার সাংবাদিকদের একটি তালিকা ও চেয়েছেন প্রতিবেদকের কাছ থেকে।


আরো বিভন্ন নিউজ দেখুন