• বুধবার, ২৪ এপ্রিল ২০২৪, ০৮:২৯ অপরাহ্ন
সর্বশেষ খবর
ঈদগাঁও উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ৩টি পদে মোট ১৭জনের মনোনয়নপত্র দাখিল লাঞ্ছিত জীবনগাঁথা ঈদগাঁওতে ডিসি ও এস পি, নির্বাচন সুষ্ঠু ও নির্বিঘ্ন করতে প্রশাসন বদ্ধপরিকর উপজেলা নির্বাচনকে ঘিরে ঈদগাঁওতে নতুন পুরাতন প্রার্থীদের দৌঁড় ঝাঁপ ইয়াবা ও দালালীর জাদুতে আলাদীনের চেরাগপ্রাপ্ত কথিত সাংবাদিক নেতা কেতারা কি আইনের উর্ধ্বে? জাতীয় শুদ্ধাচার পুরস্কার পেলেন পুলিশ পরিদর্শক মোঃ আব্দুল হাই ৩১ দিন পর অক্ষত অবস্থায় মুক্ত জাহাজসহ জিম্মি থাকা ২৩ নাবিক জামিন প্রাপ্ত মাদক ব্যবসায়ীরা বেপরোয়া, ঠেকানো যাচ্ছে না আগ্রাসন পেটে ভাত নেই,”গরিবের আবার কিসের ঈদ” কক্সবাজারে মাদক পতিতার মজুদ,আনন্দ বাড়াতে উড়াল দিচ্ছে ধনীরা কুতুবদিয়ায় পানিতে ডুবে একই পরিবারের দুই শিশুর মৃত্যু

টেকনাফ বন্দরে অন্দরে নীরব চাঁদাবাজী ও অরাজকতা, রপ্তানিতে ধব্স।

কেরামত আলী বিপ্লবঃ
আপডেট : রবিবার, ১০ সেপ্টেম্বর, ২০২৩


কেরামত আলী বিপ্লবঃ


টেকনাফ স্থল বন্দরে আমদানি ও রপ্তানিতে নৈরাজ্যকর পরিস্থিতি বিরাজ করছে। আমদানির বিপরীত ড্রাফট (এফডিডি) নিয়ে চলছে তেলেশমাতি ও সিন্ডিকেট কতৃক নিয়ন্ত্রিত। এতে বড় বড় ব্যবসায়ীরা লাভবান হলেও ক্ষুদ্র আমদানি কারক ব্যবসায়ীরা তেমন লাভবান হচ্ছেনা। যা নিয়ে ওরা বৈধ ব্যবসার প্রতি নিরুৎসাহিত হচ্ছে। বন্ধ রয়েছে ইমিগ্রেশন কার্যক্রম ও বৈধ ব্যংকিং চ্যানেল ব্যবস্থা। এর পরেও নানা জটিলতা এবং চলমান পরিস্থিতি মোকাবেলা করে রাজস্ব আদায়কারী প্রতিষ্ঠান কাস্টমস
চলেছে ২০২২-২৩ অর্থবছরে আমদানিতে ৬২১ কোটি টাকা রাজস্ব আদায় করেছে।যা অতীতের তুলনায় রেকর্ড সৃষ্টি করেছে।স্থল বন্দর দিয়ে আমদানির বিপরীত আদা,রসুন, সুপারি মিয়ানমারের আমদানিনিষিদ্ধ কাঠও। ডলার সংকট এবং ড্রাফট (এফডিডি) জটিলতা নিয়ে আমদানিরন পাশাপাশি
স্থল বন্দর রপ্তানি ও কমে গেছে। রপ্তানিতে ধস নামায় মিয়ানমার থেকে ডলার বাংলাদেশে আসছেনা। অপর দিকে আমদানির বিপরীতে মিয়ানমারে ডলার চলে যাচ্ছে। স্থলবন্দর দিয়ে মিয়ানমার থেকে পণ্য আমদানি পণ্য অতীতের তুলনায় তেমন বাড়নী। সর্বশেষ চলতি ২০২২-২৩ অর্থবছরের পণ্য আমদানি-রপ্তানির তথ্য বিশ্লেষণে এ চিত্র পাওয়া গেছে।
ব্যবসায়ীদের অভিযোগ, গত বছরের ফেব্রুয়ারিতে রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ শুরুর কয়েক মাস পর থেকে দেশে ডলার–সংকট দেখা দেয়। টেকনাফ দিয়ে মিয়ানমারের সঙ্গে বাণিজ্যের ক্ষেত্রে ঋণপত্র বা এলসি প্রথা চালু নেই। এবং আমদানি ও রপ্তানি কারকেরা ফরেন ডিমান্ড ড্রাফটের (এফডিডি) মাধ্যমে মিয়ানমার থেকে পণ্য আমদানি করে আসছে। রাষ্ট্রীয় সোনালী ব্যাংক ও বেসরকারি খাতের এবি ব্যাংক এই এফডিডি ইস্যু করে। ব্যাংক দুটি নির্ধারণ করে দিচ্ছে পণ্য আমদানি কার্যক্রম। সোনালী ব্যাংক
আদা, রসুন ছাড়া অন্য কোনো পণ্য আমদানিতে এফডিডি বা ড্রাফট ইস্যু করছে না। অথচ এবি ব্যাংক বাংলাদেশ-মিয়ানমার সীমান্ত বানিজ্য চুক্তি অনুযায়ী সব ধরনের পণ্য আমদানির জন্য এফডিডি ইস্যু করে আসছে।
এর মধ্যে ৩ আগস্ট থেকে ৩ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত এফডিডি ইস্যু বন্ধ রেখেছে এবি ব্যাংক। এবি ব্যাংকের টেকনাফ শাখার ব্যবস্থাপক মনজুরুল আলম চৌধুরী বলেন, ডলারের দাম বেড়ে যাওয়ায় স্থানীয় ব্যবসায়ীদের চাহিদামতো এফডিডি দেওয়া সম্ভব হচ্ছে না।
এদিকে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, বেশ কয়েক বছর ধরে সোনালী ব্যাংক টেকনাফ শাখা ও মিয়ানমার ইকোনমিক ব্যাংক মংডু শাখার সাথে
সরাসরি বা অনলাইন যোগাযোগ বন্ধ রয়েছে।
সোনালী ব্যাংকের টেকনাফ শাখার ব্যবস্থাপক মঈনুল হাসান সৌরভ এ প্রসংগে জানান,”বেশ কয়েক বছর ধরে নিয়মতান্ত্রিক ভাবে সম্পর্ক নেই মিয়ানমারের নির্ধারিত ব্যাংকের সাথে। তবে আমরা বিভিন্ন মারফত এফডিডি মংডুতে পাঠিয়ে থাকি। একটি নির্ভরশীল সূত্র মতে কার্যত বৈধ ভাবে টেকনাফ-মংডু সীমান্ত বানিজ্যের পরিবর্তে মিয়ানমারের আকিয়াব থেকে অবৈধ ভাবে বিভিন্ন আমদানি পন্য ট্রলারের টেকনাফ স্থল বন্দরে আসে এবং মিয়ানমার কতৃপক্ষের ভূয়া সীলমোহর ও স্বাক্ষর দিয়ে ডকুমেন্টস তৈরি করা হচ্ছে। এখানে পন্যের দুই দেশের ডিজিটাল এসএসকোড ফলো করছে না। এমনকি মিয়ানমার থেকে রপ্তানি নিষিদ্ধ কাঠও টেকনাফ বন্দরে আসার পর বৈধ করা হচ্ছে।

টেকনাফ স্থলবন্দরের শুল্ক কর্মকর্তা এ এস এম মোশারফ হোসেন বলেন,‘দেশের ডলার সংকটের মধ্যেও কাস্টমস শুল্ক কমিশনার ও অতিরিক্ত কমিশনারে নির্দেশনায় টেকনাফ শুল্কষ্টেশনের কর্মকর্তারা নিরালসভাবে কাজ করে রেকর্ড পরিমাণ রাজস্ব আয় করতে সক্ষম হয়েছে।তবে রপ্তানি কমে যাওয়ায় তা বাড়াতে আমরা ব্যবসায়ীদের উদ্বুদ্ধ করতেছি।
সীমান্ত বানিজ্য গতিশীল করতে দু দেশের জয়েন্ট ওয়ার্কিং গ্রুপের বৈঠক বসছে না কয়েক বছর ধরে। এবং ইমিগ্রেশন কার্যক্রম বন্ধ হয়ে গেছে ২০১৬ সালের ৯ অক্টোবর মিয়ানমারের আরাকানে পুলিশ ক্যাম্পে সন্ত্রাসী হামলার পরপরই। তারপরও কি ভাবে এফডিডিসহ অন্যান্য যোগাযোগের মাধ্যম কী তা অজানা এক রহস্য ঘুরপাক খাচ্ছে। এদিকে জাতীয় একটি দৈনিকে শিরোনামে প্রকাশিত “ডলার কেনাবেচায় অনিয়ম ১৩ ব্যাংকের কাছে ব্যাখা তলব করেছে।
এদিকে নাফসীমান্তের অতি গুরুত্বপূর্ণ বন্ধরটিতে দীর্ঘ দিন ধরে স্থানীয় বিতর্কিত এমপি বদি তার ভাই শুক্কুর সহ ওই পরিবারটি দীর্ঘদিন নীরব চাঁদাবাজী এবং ইয়াবা রাজত্ব চালাচ্ছে বলে অভিযোগ দীর্ঘদিনের।
তাদের কারনে সেখানে সাধারণ ব্যাবসয়ীদের কোন অংশ গ্রহণ নেই বল্লেই চলে।


আরো বিভন্ন নিউজ দেখুন