• বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ০১:৫৯ অপরাহ্ন
সর্বশেষ খবর
ঈদগাঁও উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ৩টি পদে মোট ১৭জনের মনোনয়নপত্র দাখিল লাঞ্ছিত জীবনগাঁথা ঈদগাঁওতে ডিসি ও এস পি, নির্বাচন সুষ্ঠু ও নির্বিঘ্ন করতে প্রশাসন বদ্ধপরিকর উপজেলা নির্বাচনকে ঘিরে ঈদগাঁওতে নতুন পুরাতন প্রার্থীদের দৌঁড় ঝাঁপ ইয়াবা ও দালালীর জাদুতে আলাদীনের চেরাগপ্রাপ্ত কথিত সাংবাদিক নেতা কেতারা কি আইনের উর্ধ্বে? জাতীয় শুদ্ধাচার পুরস্কার পেলেন পুলিশ পরিদর্শক মোঃ আব্দুল হাই ৩১ দিন পর অক্ষত অবস্থায় মুক্ত জাহাজসহ জিম্মি থাকা ২৩ নাবিক জামিন প্রাপ্ত মাদক ব্যবসায়ীরা বেপরোয়া, ঠেকানো যাচ্ছে না আগ্রাসন পেটে ভাত নেই,”গরিবের আবার কিসের ঈদ” কক্সবাজারে মাদক পতিতার মজুদ,আনন্দ বাড়াতে উড়াল দিচ্ছে ধনীরা কুতুবদিয়ায় পানিতে ডুবে একই পরিবারের দুই শিশুর মৃত্যু

ন্যায় বিচারের উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত বিচারপতি ইনায়েতুর রহমান,কক্সবাজারবানীর অভিনন্দন

হাসিনা মোস্তফা খান :
আপডেট : বৃহস্পতিবার, ৩১ আগস্ট, ২০২৩


৩১ আগস্ট, ২০২৩ সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের চেম্বার কোর্টে  বুধবার ২৬৬টি মামলা নিষ্পত্তি করেছেন বিচারপতি এম, ইনায়েতুর রহিম।

বুধবার চেম্বার কোর্টের কার্যতালিকায় ২৬৬টি মামলা শুনানির জন্য ছিল। এসব মামলা মাত্র সাড়ে তিন ঘণ্টায় পক্ষদ্বয়ের শুনানি নিয়ে নিষ্পত্তির আদেশ দেন বিচারপতি এম, ইনায়েতুর রহিম।

এসব মামলার মধ্যে রয়েছে হাইকোর্টের বিভিন্ন রায় ও আদেশের বিষয়ে সংক্ষুব্ধ পক্ষে আনা মামলা। এর মধ্যে সিভিল, ক্রিমিনাল, রিটসহ বিভিন্ন মামলা ছিল।
মামলা নিষ্পত্তির এ নজির বিষয়ে এটর্নি জেনারেল এ এম আমিন উদ্দিন তার প্রতিক্রিয়ায় বলেন, একজন কর্মঠ বিচারকের একটা প্রকৃত উদাহরণ। অন্যরা এর থেকে অনুপ্রাণিত হবেন নিশ্চয়ই। এটাই প্রত্যাশা থাকবে। তিনি বলেন, ভবিষ্যতের জন্য এটি উদাহরণ হয়ে থাকবে যে, মামলার জট কমাতে এভাবে কাজ করা যায়। চেম্বার কোর্ট বিচারপতি এম, ইনায়েতুর রহিম একটি অসাধারণ কাজ করেছেন। ফলে মামলার জট হ্রাসের পাশাপাশি বিচারিক কাজে গতিশীলতা বাড়বে।

সুপ্রিম কোর্টের সিনিয়র এডভোকেট সালাউদ্দিন দোলন বলেন, আপিল বিভাগের চেম্বার কোর্টে এক কার্যদিবসে এতো পরিমাণ মামলা নিষ্পত্তি করে বিচারপতি এম, ইনায়েতুর রহিম নজির স্থাপন করেছেন। এ ধরনের নজির বিচার বিভাগের মামলা নিষ্পত্তিতে গতিশীলতা আনবে। এতে বিচার প্রার্থী ও আইনজীবী উভয়ই উপকৃত হয়েছেন। পাশাপাশি মামলা জট কমার সাথে উচ্চ আদালতের ভাবমূর্তিও বৃদ্ধি পাবে।

বুধবার বেলা আড়াইটা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত এসব মামলার উপর শুনানি নিয়ে আদেশ দেন চেম্বার কোর্ট বিচারপতি এম, ইনায়েতুর রহিম।
হাইকোর্টের বিচারপতি হিসাবে দায়িত্ব পালনকালে একদিনে এক হাজারের অধিক মামলা নিষ্পত্তি করে নজির সৃষ্টি করেছিলেন বিচারপতি এম, ইনায়েতুর রহিমের নেতৃত্বাধীন ডিভিশন বেঞ্চ। ফলে হাইকোর্ট বিভাগে বিভিন্ন বেঞ্চে মামলা শুনানি ও নিষ্পত্তিতে গতিশীলতা বৃদ্ধি পায়। আপিল বিভাগে নিয়োগ লাভের পর চেম্বার কোর্ট বিচারপতি হিসেবে দায়িত্ব প্রাপ্ত হয়ে মামলা নিষ্পত্তিতে দক্ষতার পরিচয় দিচ্ছেন বিচারপতি এম, ইনায়েতুর রহিম।

আইনজীবীরা এতে তার প্রশংসা করে আশা প্রকাশ করেন যে, সুপ্রিম কোর্টের উভয় বিভাগে মামলা নিষ্পত্তিতে এটি গতিশীলতা আনবে। ফলে মামলা জট পর্যায়ক্রমে কমে আসবে।

এদিকে ন্যায় বিচারের এমন উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত স্থাপন করায় বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহমানকে কৃতজ্ঞতা সহকারে অভিনন্দন জানিয়েছেন কক্সবাজারবানীর সম্পাদক নির্যাতিত সাংবাদিক ফরিদুল মোস্তফা খান।

তিনি বলেন প্রদীপের জুলুম নির্যাতনের সময় এই বিচারপতি আমার প্রানের নিরাপত্তা দিতে স্বরাষ্ট্র সচিব,পুলিশের আইজি ডিসি এসপিকে নির্দেশ না দিলে উখিয়া টেকনাফের এমপি বদির লালিত মাদক সিন্ডিকেট কারাগারের ভিতরেই আমাকে প্রানে হত্যা করতো।


আরো বিভন্ন নিউজ দেখুন