• রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪, ১১:২৯ অপরাহ্ন
সর্বশেষ খবর
লাঞ্ছিত জীবনগাঁথা ঈদগাঁওতে ডিসি ও এস পি, নির্বাচন সুষ্ঠু ও নির্বিঘ্ন করতে প্রশাসন বদ্ধপরিকর উপজেলা নির্বাচনকে ঘিরে ঈদগাঁওতে নতুন পুরাতন প্রার্থীদের দৌঁড় ঝাঁপ ইয়াবা ও দালালীর জাদুতে আলাদীনের চেরাগপ্রাপ্ত কথিত সাংবাদিক নেতা কেতারা কি আইনের উর্ধ্বে? জাতীয় শুদ্ধাচার পুরস্কার পেলেন পুলিশ পরিদর্শক মোঃ আব্দুল হাই ৩১ দিন পর অক্ষত অবস্থায় মুক্ত জাহাজসহ জিম্মি থাকা ২৩ নাবিক জামিন প্রাপ্ত মাদক ব্যবসায়ীরা বেপরোয়া, ঠেকানো যাচ্ছে না আগ্রাসন পেটে ভাত নেই,”গরিবের আবার কিসের ঈদ” কক্সবাজারে মাদক পতিতার মজুদ,আনন্দ বাড়াতে উড়াল দিচ্ছে ধনীরা কুতুবদিয়ায় পানিতে ডুবে একই পরিবারের দুই শিশুর মৃত্যু টেকনাফ অপরাধ নিয়ন্ত্রণে স্থানীয়দের সহায়তা চাইলেন এসপি মাহফুজ

কক্সবাজারের হাত-পা বাঁধা আওয়ামীলীগ নেতার লাশ উদ্ধার।

মোহাম্মদ ফয়সাল:
আপডেট : সোমবার, ২১ আগস্ট, ২০২৩


কক্সবাজার শহরের একটি আবাসিক হোটেলের কক্ষে মিলেছে পৌর আওয়ামী লীগের এক নেতার রক্তাক্ত মরদেহ। হাত বাঁধা অবস্থায় পাওয়া মরদেহটির শরীরে ছুরির তিনটি আঘাত এবং শরীরের নানা অংশে জখম রয়েছে।

সোমবার সকালে কক্সবাজার শহরের হলিডের মোড় সংলগ্ন আবাসিক হোটেল সানমুনের দ্বিতীয় তলার ২০৮ নম্বর কক্ষে মিলেছে এই মরদেহ। নিহতের নাম সাইফুদ্দিন। তিনি কক্সবাজার শহরের ঘোনার পাড়া এলাকার অবসরপ্রাপ্ত আনসার কমান্ডার আবুল বশরের ছেলে। তিনি কক্সবাজার পৌর আওয়ামী লীগের বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক এবং কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগ সহ নানা ইউনিটের সাবেক ছাত্রনেতা ছিলেন।
ঘটনাস্থলে গিয়ে কক্সবাজারের পুলিশ সুপার মো. মাহফুজুল ইসলাম জানিয়েছেন, হোটেল কর্তৃপক্ষের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে পুলিশ মরদেহটি উদ্ধারের জন্য হোটেলে এসেছেন। হাত বাঁধা ছুরিকাঘাত সহ নানাভাবে জখম করে এই হত্যাকান্ড সংঘটিত করা হয়েছে। হোটেলের সিসিটিভি ফুটেজ সহ নানা উৎস থেকে হত্যায় জড়িতদের শনাক্ত করার কাজ চলছে। প্রয়োজনীয় তদন্ত শেষে মরদেহটি ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হবে।
প্রতিষ্ঠানটির ম্যানেজার রেজাউল করিম জানান, বরিবার বিকাল সাড়ে ৫ টার দিকে নিহত সহ ৩ জন এসে ২০৮ নম্বর কক্ষে উঠেন। সোমবার সকালে তার সন্ধানে আসেন তার বন্ধুরা। বন্ধুদের সাথে নিয়ে কক্ষটিতে গিয়ে দরজায় ধাক্কা দিলে খুলে যায়। খাটে রক্তাক্ত মরদেহ দেখে পুলিশকে খবর দেয়া হয়। নিহতরা প্রায়শ হোটেলে এসে রুম নিয়ে থাকতেন।
এ ব্যাপারে কক্সবাজার পৌর মেয়র মাহাবুবুর রহমান চৌধুরী জানিয়েছেন, সাইফুদ্দিনের নিজের প্যান্টের বেল্ট দিয়ে হাত দুই টি বাঁধা রয়েছে। হাটু, পেট এবং পেটের পেছনে ৩টি ছুরিকাঘাত রয়েছে। রয়েছে আঘাতের নানা চিহ্নও। ইতোমধ্যে সিসিটিভির ফুটেজ দেখে সাথে থাকাদের শনাক্ত করতে কাজ করতে পুলিশ। তিনি হত্যায় জড়িতদের দ্রুর গ্রেপ্তারের দাবি জানান। তিনি জানান, কক্সবাজার শহর পর্যটন শহর। এই শহর এখন অনেক বেশি অনিরাপদ হয়ে গেছে। নিরাপদ শহর করতে তিনি পুলিশের প্রতি আহবান জানান।
নিহতের ভাই মহিউদ্দিন বলেন, ‘রাতে বড় ভাই বাড়িতে যাননি। ফোনও বন্ধ ছিল। ভাবি (নিহতের বউ) ভাইয়ের বন্ধুদের ফোন করে খবর নিতে থাকে। ভাইয়ের বন্ধু ইলিয়াস ভাইয়ের খোঁজে বিভিন্ন স্থানে খবর নিতে নিতে সানমুনে এসে কক্ষে মরদেহটি পান।
এদিকে, সাইফুদ্দিনের খুনিতে দ্রæত গ্রেপ্তারের দাবিতে কক্সবাজারে মিছিল করছে সাবেক ছাত্রনেতা সহ বিভিন্ন সংগঠনের নেতা-কর্মীরা


আরো বিভন্ন নিউজ দেখুন