• বুধবার, ২৪ এপ্রিল ২০২৪, ১১:৩৮ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ খবর
ঈদগাঁও উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ৩টি পদে মোট ১৭জনের মনোনয়নপত্র দাখিল লাঞ্ছিত জীবনগাঁথা ঈদগাঁওতে ডিসি ও এস পি, নির্বাচন সুষ্ঠু ও নির্বিঘ্ন করতে প্রশাসন বদ্ধপরিকর উপজেলা নির্বাচনকে ঘিরে ঈদগাঁওতে নতুন পুরাতন প্রার্থীদের দৌঁড় ঝাঁপ ইয়াবা ও দালালীর জাদুতে আলাদীনের চেরাগপ্রাপ্ত কথিত সাংবাদিক নেতা কেতারা কি আইনের উর্ধ্বে? জাতীয় শুদ্ধাচার পুরস্কার পেলেন পুলিশ পরিদর্শক মোঃ আব্দুল হাই ৩১ দিন পর অক্ষত অবস্থায় মুক্ত জাহাজসহ জিম্মি থাকা ২৩ নাবিক জামিন প্রাপ্ত মাদক ব্যবসায়ীরা বেপরোয়া, ঠেকানো যাচ্ছে না আগ্রাসন পেটে ভাত নেই,”গরিবের আবার কিসের ঈদ” কক্সবাজারে মাদক পতিতার মজুদ,আনন্দ বাড়াতে উড়াল দিচ্ছে ধনীরা কুতুবদিয়ায় পানিতে ডুবে একই পরিবারের দুই শিশুর মৃত্যু

অচিরেই ভুঁইফোড় সাংবাদিকে ভরে যাবে বাংলাদেশ: ফরিদুল মোস্তফা খান

সম্পাদকীয়
আপডেট : রবিবার, ১০ জানুয়ারি, ২০২১

কক্সবাজার রোববার, ১০ জানুয়ারি ২০২১:
সরকার পেশাদার অপেশার সাংবাদিক চিহ্নিত করতে না পারলে খুব অচিরেই ভুঁইফোড় সাংবাদিকে বাংলাদেশ ভরে যাবে।
দেশে আর কোন প্রকৃত সাংবাদিকের ওপর জুলুম বরদাস্ত করবেনা বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম -বিএমএসএফ ও সাংবাদিক নির্যাতন প্রতিরোধ কমিটি।
যারা নিজেকে সাংবাদিক দাবি করে আরেক সাংবাদিক প্রতিষ্ঠান বা সাংবাদিকদের হামলা মামলা কিংবা কোন প্রকার ক্ষতি সাধনে দৃর্বৃৃত্তদের উস্কিয়ে দিবে এমন রাক্ষুসে সাংবাদিকেরও ছাড় দেওয়া হবেনা।
এসব অপকর্মে জড়িত সে যেই হোক কঠোরভাবে প্রতিহত করা হবে। এজন্যই মতবিরোধ ভুলে সকল পেশাদার সাংবাদিকদের ঐক্যবদ্ধ হওয়ার বিকল্প নেই।
সম্প্রতি কয়েকটি বিদেশি গণমাধ্যমে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে কক্সবাজারে কারা নির্যাতিত সাংবাদিক বিএমএসএফ কেন্দ্রীয় কমিটির সহ- সাংগঠনিক সম্পাদক ও সাংবাদিক নির্যাতন প্রতিরোধ কমিটির নেতা দৈনিক জনতারবানী ও কক্সবাজারবানী সম্পাদক ফরিদুল মোস্তফা খান একথা বলেন।
এসময় তিনি নিজেদের অভ্যন্তরিন কোন্দল ও রেষারেষির কারনে সাম্প্রতিক সময়ে বাংলাদেশে নজিরবিহীন সাংবাদিক নির্যাতনের ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করে বলছেন, প্রত্যেকটি ঘটনায় দৃর্বৃত্তদের উৎসাহিত করেছে কতিপয় দালাল চাটুকার অপেশাদার রাক্ষুসে সাংবাদিকরা।

সরকার ও স্থানীয় প্রশাসনের উচিত এদেরকে চিহ্নিত করে জরুরি ব্যবস্থা নেওয়া।
অন্যথায় বিপদগামী এসব সুবিধাভোগীরা গণমাধ্যম ও রাষ্ট্রকেও বেকায়দায় ফেলবে।

কাজেই সরকারের সকল এজেন্সির উচিত কে সাংবাদিক, কে সাংবাদিক না, কে লিখতে জানে, কে জানেনা, থানা বা প্রশাসনের দুয়ারে দুয়ারে কারা ঘুর ঘুর করে, কেন করে, তাদের চিহ্নিত করে এখনি ব্যবস্থা না নিলে পুরো বাংলাদেশ ভুঁইফোঁড় ও দালাল সাংবাদিকে ভরে যাবে।

অনলাইন স্বাক্ষাৎকারে সাংবাদিক ফরিদুল মোস্তফা খান আরো বলেন, অন্তত নিজেদের সম্মান রক্ষায় সকল জেলা উপজেলায় সাংবাদিক নির্যাতন প্রতিরোধ কমিটি গঠন এখন সময়ের দাবী হয়ে উঠেছে ।
অন্যথায় তিনি বাংলাদেশের গণমাধ্যম ও সাংবাদিকদের সামনে কঠিন বিপদের আশংকা প্রকাশ করেন।

সাংবাদিক ফরিদুল বলেন,আসুন আমরা সব ভেদাভেদ ভুলে দুনিয়ার সাংবাদিকরা এক হয়ে বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম ও সাংবাদিক নির্যাতন প্রতিরোধ কমিটিতে সক্রিয় হয়ে ১৪ দফা দাবি বাস্তবায়নের জন্য কাজ করি। গণমাধ্যমের স্বাধীনতার পাশাপাশি নিজেদের হারানো মর্যাদা রক্ষা করি। এতেই সকলের কল্যান হবে।


আরো বিভন্ন নিউজ দেখুন