• শনিবার, ০২ মার্চ ২০২৪, ০৭:৫০ অপরাহ্ন
সর্বশেষ খবর
বাইতুল ইজ্জত জামে মসজিদের বার্ষিক সভা অনুষ্ঠিত  বর্নাঢ্য আয়োজনে হোয়াইক্যং ইউনিয়ন সমিতির বার্ষিক মিলন মেলা ও পুরস্কার বিতরণ সম্পন্ন  লামায় মানবজমিন-এর প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত ঈদগাঁওর সুপারি গলির আশপাশ ময়লা আবর্জনায় ভরপুর : ধ্বংস হচ্ছে পরিবেশ  উখিয়ায় আলোচিত সৈয়দ করিম হত্যাকন্ডের আসামী  সালামত উল্লাহ গ্রেফতার : রক্তাক্ত ছুরি ও নিহতের পরিহিত জামা উদ্ধার পুলিশ পদক পেলেন কক্সবাজার পুলিশ সুপার মাহফুজুল ইসলাম। পুলিশ সপ্তাহ ২০২৪’ উপলক্ষে পদক পেলেন র‌্যাব-১৫ এর সিইও সহ ৩ কর্মকর্তা টেকনাফ থানার ওসি ওসমান গনির নেতৃত্বে পুলিশের অভিযানে দুইটি অস্ত্র উদ্ধার। কুরআনের পথে না চললে পৃথিবীতে শান্তি প্রতিষ্ঠা হবে না : ক্বারী আবুল কাসেম সরকার বড় ভাইকে মারধরের ঘটনায় ২ বছরের সাজাপ্রাপ্ত আনাছের সাজা আপিলেও বহাল

৩৭ দলের অভিন্ন কর্মসূচী আজ

কক্সবাজারবানী’র সাথে থাকুন
আপডেট : শনিবার, ২৯ জুলাই, ২০২৩

 

‘সরকারের পদত্যাগসহ নির্দলীয়-নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়ক সরকার পুনঃপ্রতিষ্ঠার একদফা’ দাবিতে শুক্রবার রাজধানীর ১১ স্থানে ‘মহাসমাবেশ’ করে ৩৭টি রাজনৈতিক দল। এসব দলের মধ্যে বিএনপি নেতৃত্বাধীন যুগপৎ আন্দোলনে রয়েছে ৩৬ দল। তারাও ঢাকা শহরের সব গুরুত্বপূর্ণ প্রবেশমুখে শনিবার সকাল ১১টা থেকে ৪টা পর্যন্ত অবস্থান কর্মসূচি ঘোষণা করেন। এদিন একই কর্মসূচি পালন করবে বিএনপিও।

একদফা দাবিতে শুক্রবার বিকালে রাজধানীর মৎস্য ভবনের সামনের সড়কে সমাবেশ করে গণতন্ত্র মঞ্চ। এ জোটের পক্ষ থেকেও অভিন্ন কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়। জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জেএসডি) সভাপতি আ স ম আব্দুর রব বলেন, ‘সরকার গণ্ডগোল করতে চায় বলেই বিরোধীদের কর্মসূচির দিনে পালটা কর্মসূচি দিচ্ছে। সমাবেশে আসা তো অপরাধ না, বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের তল্লাশি করে গ্রেফতার করা হচ্ছে। বিরোধীদের কর্মসূচিতে হামলা হলে জনগণ ছেড়ে দেবে না

নাগরিক ঐক্যের সভাপতি মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন, ‘এই সরকারকে ভোট চোর বললে অসম্মান করা হয়, এই সরকার ‘ভোট ডাকাত’। গণতন্ত্র মঞ্চের সমন্বয়ক বিপ্লবী

ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক বলেন, ‘মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ মানুষের শরীর নষ্ট করে, তেমনি এই মেয়াদোত্তীর্ণ সরকার দেশকে নষ্ট করছে।’ সরকার শান্তি সমাবেশের নামে গুন্ডা বাহিনী নিয়ে জনগণকে ভয় দেখাচ্ছে বলে অভিযোগ করেন গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়ক জোনায়েদ সাকি।

সমাবেশে আরও বক্তব্য দেন ভাসানী অনুসারী পরিষদের আহ্বায়ক শেখ রফিকুল ইসলাম, রাষ্ট্র সংস্কার আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়ক হাসনাত কাইয়ুম, জেএসডির সাধারণ সম্পাদক শহিদ উদ্দিন মাহমুদ, নাগরিক ঐক্যের সাধারণ সম্পাদক শহিদুল্লাহ কায়সার, গণসংহতি আন্দোলনের নির্বাহী সমন্বয়কারী আবুল হাসান প্রমুখ।

১২ দলীয় জোট : বিকালে রাজধানীর বিজয়নগরে সমাবেশ করে ১২ দলীয় জোট। তারাও একদফা দাবিতে অভিন্ন কর্মসূচি ঘোষণা করে। জোটের প্রধান জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান মোস্তফা জামাল হায়দারের সভাপতিত্বে ও সমন্বয়ক বাংলাদেশ জাতীয় দলের চেয়ারম্যান সৈয়দ এহসানুল হুদার পরিচালনায় আরও বক্তব্য দেন- বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টির মেজর জেনারেল (অব.) সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম, বাংলাদেশ এলডিপির মহাসচিব শাহাদাত হোসেন সেলিম, জমিয়তে উলামায়ে ইসলামের মুফতি গোলাম মহিউদ্দিন ইকরাম, বাংলাদেশ মুসলিম লীগের (বিএমএল) অ্যাডভোকেট শেখ জুলফিকার বুলবুল চৌধুরী, জাতীয় গণতান্ত্রিক পার্টির (জাগপা) ইকবাল হোসেন প্রধান প্রমুখ।

এলডিপি : বিকালে পূর্ব পান্থপথস্থ কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে মহাসমাবেশ করে লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টি (এলডিপি)। এ সময় দলটির প্রেসিডেন্ট ড. কর্নেল (অব.) অলি আহমেদ বলেন, ‘বর্তমান অবৈধ সরকার ছলেবলে কৌশলে বিভিন্ন অনৈতিক পন্থা অবলম্বন করে দীর্ঘ ১৫ বছর ক্ষমতা দখল করে এ দেশ শাসন করছে। তাদের এখন সময় বিদায় নেওয়ার। তাদের বিদায় নিতেই হবে।’

এলডিপির মহাসচিব ড. রেদোয়ান আহমদের সভাপতিত্বে মহাসমাবেশে আরও বক্তব্য দেন কেন্দ্রীয় নেতা নূরুল আলম চৌধুরী, ড. নেওয়ামূল বশির, ড. আওরঙ্গজেব বেলাল, অ্যাডভোকেট এসএম মোরশেদ, অধ্যক্ষ সাকলায়েন, মাহে আলম চৌধুরী, অধ্যক্ষ মাহবুবুর রহমান, অধ্যাপিকা কারিমা খাতুন, বিল্লাল হোসেন মিয়াজি, সাইদুর রহমান রুপা চৌধুরী প্রমুখ।

জাতীয়তাবাদী সমমনা জোট : অভিন্ন কর্মসূচি দিয়েছে জাতীয়তাবাদী সমমনা জোট। দুপুরে রাজধানীর বিজয়নগর আল-রাজি কমপ্লেক্সের সামনে জোটের নেতারা সমাবেশ করে। এতে সভাপতিত্ব করেন জোটের প্রধান সমন্বয়ক ও এনপিপি চেয়ারম্যান ড. ফরিদুজ্জামান ফরহাদ। সমাবেশ শেষে একটি বিক্ষোভ মিছিল বিজয়নগর ঘুরে আবার পুরানা পল্টনে শেষ হয়। এনপিপি মহাসচিব মোস্তাফিজুর রহমান মোস্তফার সঞ্চালনায় সমাবেশে আরও বক্তব্য দেন- জাগপা একাংশের সভাপতি খন্দকার লুৎফর রহমান, গণদলের এটিএম গোলাম মাওলা চৌধুরী, বাংলাদেশ ন্যাপ এনএম শাওন সাদিকী, মুসলিম লীগের খান আসাদ, জনতা অধিকার পার্টির তরিকুল ইসলাম প্রমুখ।

এবি পার্টি : যুগপৎ আন্দোলনে না থাকলেও এক দফা দাবির প্রতি সংহতি জানিয়ে শুক্রবার বিজয়নগরের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে ‘প্রতিবাদী অবস্থান ও বিক্ষোভ’ করে আমার বাংলাদেশ পার্টি (এবি পার্টি)। তারা শনিবার সকাল ১১টায় রাজধানীতে মিছিল করবে। দলটির যুগ্ম আহ্বায়ক তাজুল ইসলামের সভাপতিত্বে ও সিনিয়র সহকারী সদস্য সচিব আনোয়ার সাদাতের সঞ্চালনায় অফারও বক্তব্য দেন পার্টির সদস্য সচিব মজিবুর রহমান মনজু, যুগ্ম আহ্বায়ক তাজুল ইসলাম, যুগ্ম সদস্য সচিব আনিসুজ্জামান, বিএম নাজমুল হক, দপ্তর সম্পাদক আবদুল্লাহ আল মামুন, সিনিয়র সহকারী সদস্য সচিব আবদুল বাসেত মারজান প্রমুখ।

এ ছাড়াও শুক্রবার রাজধানীতে পৃথকভাবে সমাবেশ করেছে গণফোরাম (একাংশ) ও বাংলাদেশ পিপলস পার্টি, ড. রেজা কিবরিয়া নেতৃত্বাধীন গণঅধিকার পরিষদ ও নুরুল হক নুর নেতৃত্বাধীন গণঅধিকার পরিষদ, মোস্তাফিজুর রহমান ইরান নেতৃত্বাধীন বাংলাদেশ লেবার পার্টি, ববি হাজ্জাজ নেতৃত্বাধীন জাতীয়তাবাদী গণতান্ত্রিক আন্দোলন (এনডিএম) এবং চারদলীয় বাম গণতান্ত্রিক ঐক্য জোট। এসব দলও একই কর্মসূচি ঘোষণা করেন।

সাংবাদিক ফরিদুল মোস্তফা খান সম্পাদিত


আরো বিভন্ন নিউজ দেখুন