• বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ১১:২৭ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ খবর
ঈদগাঁও উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ৩টি পদে মোট ১৭জনের মনোনয়নপত্র দাখিল লাঞ্ছিত জীবনগাঁথা ঈদগাঁওতে ডিসি ও এস পি, নির্বাচন সুষ্ঠু ও নির্বিঘ্ন করতে প্রশাসন বদ্ধপরিকর উপজেলা নির্বাচনকে ঘিরে ঈদগাঁওতে নতুন পুরাতন প্রার্থীদের দৌঁড় ঝাঁপ ইয়াবা ও দালালীর জাদুতে আলাদীনের চেরাগপ্রাপ্ত কথিত সাংবাদিক নেতা কেতারা কি আইনের উর্ধ্বে? জাতীয় শুদ্ধাচার পুরস্কার পেলেন পুলিশ পরিদর্শক মোঃ আব্দুল হাই ৩১ দিন পর অক্ষত অবস্থায় মুক্ত জাহাজসহ জিম্মি থাকা ২৩ নাবিক জামিন প্রাপ্ত মাদক ব্যবসায়ীরা বেপরোয়া, ঠেকানো যাচ্ছে না আগ্রাসন পেটে ভাত নেই,”গরিবের আবার কিসের ঈদ” কক্সবাজারে মাদক পতিতার মজুদ,আনন্দ বাড়াতে উড়াল দিচ্ছে ধনীরা কুতুবদিয়ায় পানিতে ডুবে একই পরিবারের দুই শিশুর মৃত্যু

ইসরায়েলে মিলল প্রাগৈতিহাসিক যুগের মানুষের নতুন ধরন

অনলাইন ডেস্ক
আপডেট : শুক্রবার, ২৫ জুন, ২০২১

ইসরায়েলের রামলায় ‘প্রাক-মানুষের’ একটি নতুন ধরন পাওয়া গেছে। বিজ্ঞানীরা বলেছেন, এ ধরনের নমুনা সম্পর্কে তারা আগে কোনো ধারণা পাননি। এটা একটা নতুন আবিষ্কার বলে মন্তব্য করে তারা বলেন, এর মাধ্যমে মানব বিবর্তনের ওপর নতুন আলোকপাত পাওয়া গেল।

জেরুজালেমের হিব্রু বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রত্নতাত্ত্বিকদের একটি দল রামলা সিটির কাছে এক স্থানে মাটি খুঁড়ে প্রাগৈতিহাসিক যুগের মানুষদের এই দেহাবশেষ আবিষ্কার করেন। এর সঙ্গে হোমো জেনাস মনুষ্যবর্গ মানে আধুনিক মানুষের দেহের কোনো মিল নেই। খবর আল জাজিরার।

তেলআবিব বিশ্ববিদ্যালয়ের নৃবিজ্ঞানী ও প্রত্নতত্ত্ববিদ দলের প্রধান ইওসি জাইডনার যে জায়গায় এসব হাড়গোড় পাওয়া গেছে সে জায়গাটাকে নেশার রামলা হোমটাইপ হিসেবে বর্ণনা করেছেন।

এক বিবৃতিতে গবেষকরা বলেছেন, ১ লাখ ৪০ থেকে ১ লাখ ২০ হাজার বছর আগেকার এই সময়ের মাঝামাঝিতে আর্কেইক হোমা ও নিয়েন্ডারথেল মানুষদের সঙ্গে মিল পাওয়া এমন মানুষরা ছিল।

তারা বলেন, একই সময়ের ওই মানুষদের সঙ্গে আধুনিক মানুষেদের খুব কমই মিল পাওয়া যায়। তাদের ছিল ভিন্ন ধরনের মাথার খুলি ও বড় বড় দাঁত। তাদের কোনো চিবুক ছিল না।

রামলার প্রত্নতাত্ত্বিকরা ওই জায়গায় মানব দেহাবশেষ ছাড়াও বিভিন্ন পশুর দেহাবশেষও আবিষ্কার করেছেন। একই সঙ্গে পাওয়া গেছে পাথরের তৈরি বিভিন্ন অস্ত্র-শস্ত্রও।

প্রত্নতাত্ত্বিক জাইডনার বলেন, মানব জীবাশ্মের সঙ্গে পাওয়া প্রত্নতাত্ত্বিক উপকরণগুলো থেকে দেখা যায়, নেশার রামলা হোমো উন্নতধরনের প্রস্তর-সরঞ্জাম উত্পাদন প্রযুক্তির অধিকারী ছিল এবং সম্ভবত স্থানীয় হোমো সেপিয়েন্সের সঙ্গে তাদের দেখা হয়েছিল।

তেল আবিব বিশ্ববিদ্যালয়ের নৃবিজ্ঞানী ইসরায়েল হার্শকোভিটস বলেন, আমাদের অনুসন্ধানে বোঝা যাচ্ছে, পশ্চিম ইউরোপের বিখ্যাত নিয়ান্ডারথেলরা কেবল বৃহত্তর জনগোষ্ঠীর অবশিষ্টাংশ, যারা এখানে বাস করতেন।


আরো বিভন্ন নিউজ দেখুন